লাইফ ইজ লাইক এ পিয়ানো

গতকাল ফেডারেল ক্রেডিট ইউনিয়ন ব্যাংকে গিয়েছিলাম কিছু টাকা তুলতে। ক্যাশিয়ারের কাছ থেকে যখনি টাকা নিচ্ছিলাম ঠিক তখনি তার সামনে রাখা এই জিনিসটি চোখে পড়লো। যখনি মনোযোগ দিয়ে লিখাটা পড়লাম তখনি কেমন যেন জীবন সম্পর্কে এক ধরণের বাস্তব অভিজ্ঞতা অনুধাবন করলাম।
সত্যিই তো, আপনি যেভাবে আপনার জীবন নিয়ে খেলবেন ঠিক সেভাবেই আপনি তার ফলাফল পাবেন। তাই লিখাটা দেখে কত শত স্ট্রাগল, কষ্ট, দুঃখ এবং যন্ত্রণার কথা ভেসে আসলো মুহূর্তেই। ঠিক ওই মুহূর্তে আবার এটা ও ভেসে এসেছে, ওই সমস্ত দুঃখ কষ্টের কারণে আজ আমাকে মহান রাব্বুল আল আমিন দুবেলা দুমুঠো ভাত খাওয়ার তৌফিক দিয়েছেন। পৃথিবীতে এখনো অসংখ্য মানুষ খাবার পায় না। সেই দিক থেকে মহান সৃষ্টিকর্তা আমাকে কতই না ভালো রেখেছেন, আলহামদুলিল্লাহ।
তাই যারা এখনো ভাবছেন আপনার জীবন ঘোর অন্ধকারেই নিমজ্জিত, কিংবা অনেক কষ্টে আছেন, একটু সুখের জন্য অনেক স্ট্রাগল করছেন, তাদেরকেই বলছি আপনি হেরে যান নি। আপনার সুদিন কিছুদিনের মধ্যেই আপনার কাছে ধরা দিবে। তবে একটা কথা বলে রাখি, বিগত দিনের দুঃখ কষ্ট গুলোকে কখনো কখনোই ভুলবেন না, কারণ আগামী দিনের ভালো থাকার পিছনে বিগত দিনের কষ্টগুলোই একমাত্র আপনার সম্বল এবং আপনি যখন অন্যের কষ্ট দেখে নিজের কষ্টের সাথে মিলিয়ে নিতে পারবেন ঠিক তখন আপনার দায়িত্ব হচ্ছে ওই ব্যক্তিকে ভালোবাসা , মমতা দিয়ে স্বান্তনা দেয়া, জেনে রেখো দুঃখের পরেই সুখ।
আজ পর্যন্ত পৃথিবীতে যারা অনেক কিছুই অর্জন করেছে, খুঁজে দেখলে হয়তো আপনি উনাদের দুঃখের গল্প ও পেতে পারেন। একজন মানুষ যখন কোটিপতি হয় অনেক শ্রম, সাধনা এবং কষ্টের মাধ্যমে সততার সহিত, তখন ওই ব্যক্তি এতটুকু হলে ও সম্মান পাওয়া উচিত। যদি কেউ অসৎ পথে টাকা উপার্জন করে সেই ক্ষেত্রে এই জন্যই মানুষের ঘৃণা জন্মে। তাই আপনারা ছবির এই কথাটার মত নিজেদের জীবনকে উপলব্ধি করার চেষ্টা করবেন। তাহলেই দেখবেন জীবন খুব সুন্দর। সবাইকে সৃষ্টিকর্তা বুঝার তৌফিক দিক।

Leave a Reply